• বৃহঃ. ফেব্রু ২৫, ২০২১

অনুসন্ধানবার্তা

অজানাকে জানতে চোখ রাখুন

৯৯৯ থেকে ফোন পেয়ে বগুড়ার নন্দীগ্রামে চাঁদাবাজ যুবলীগ নেতাকে গ্রেফতার

Byঅনুসন্ধান বার্তা

অক্টো ২৩, ২০২০
0 0
Read Time:3 Minute, 5 Second

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি :

বগুড়ার নন্দীগ্রামে চাঁদাবাজি করতে গিয়ে স্থানীয় জনতার হাতে শাহীন আলম (৩৫) নামে এক ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা আটক হয়েছে। পরে স্থানীয় লোকজন ৯৯৯-এ ফোন করলে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে থেকে শাহীনকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত শাহীন আলম বুড়ইল ইউনিয়ন যুবলীগের সহ সভাপতি ও আফুছাগাড়ী গ্রামের লোকমান আলীর ছেলে।

থানা পুলিশ ও স্থানীয়সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বুড়ইল ইউনিয়নের তুলাশন গ্রামের সোবাহান আলীর মেয়ে মরিয়ম খাতুনকে দেড়বছর আগে পাশের পেংহাজারকি গ্রামের সাদ্দাম হোসেনের সাথে বিয়ে দেন। বিয়ের পর থেকে সংসার জীবনে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিরোধ লেগেই থাকতো। গত এক সপ্তাহ আগে স্ত্রীকে তালাক দেন সাদ্দাম হোসেন।

বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) সন্ধ্যায় উপজেলার হামিদ বাজারে ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা শাহীন আলমের নেতৃত্বে কয়েকজন বিষয়টি মিমাংসার কথা বলে মেয়ের বাবা সোবাহান আলীকে পথরোধ করে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন। তিনি টাকা দিতে না চাইলে তাকে মারধর করে। এ সময় তার চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে যুবলীগ নেতা শাহীনকে আটক করলেও অন্যরা পালিয়ে যায়। পরে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে থেকে শাহীনকে গ্রেফতার করে।

নন্দীগ্রাম বুড়ইল ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি লিটন চন্দ্র চৌহান বলেন, বুড়ইল ইউনিয়ন যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি হয়নি। তবে কোনো পদে না থাকলেও শাহীন যুবলীগ করে। এ ঘটনার সঙ্গে সে জড়িত নয় বলেও তিনি দাবী করেন।

শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) দুপুরে নন্দীগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ শওকত কবির এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, স্থানীয় জনতা শাহীনকে আটক করে রাখে। পরে ৯৯৯-এ থেকে ফোন পাওয়ার পর তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে বুড়ইল ইউনিয়নের ৮নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সোবাহান আলী বাদী হয়ে গ্রেফতারকৃত যুবলীগ নেতা শাহীন আলম সহ সাত জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছেন। মামলার অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %
error: Content is protected !!