• মঙ্গল. এপ্রি ২০, ২০২১

অনুসন্ধানবার্তা

অজানাকে জানতে চোখ রাখুন

ধুনটে চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণা : স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতিকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

Byঅনুসন্ধান বার্তা

মার্চ ১০, ২০২১
0 0
Read Time:5 Minute, 12 Second

স্টাফ রিপোর্টার, অনুসন্ধানবার্তা :

বগুড়ার ধুনটে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দপ্তরি পদে চাকরি দেয়ার নামে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নেয়ায় এবং দীর্ঘদিনেও টাকা ফেরত না দেওয়ায় সেলিম রেজা (৩০) নামে এক স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনতা।

বুধবার (১০ মার্চ) সন্ধার দিকে ধুনট উপজেলার গোপালনগর ইউনিয়নের কোনাগাঁতি গ্রাম থেকে জনতার হাতে আটককৃত ওই স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে আটক করেছে পুলিশ।

আটককৃত সেলিম রেজা গোপালনগর ইউনিয়নের মহিশুরা উত্তরপাড়া গ্রামের মৃত ছানোয়ার হোসেন টুনুর ছেলে এবং গোপালনগর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি।

জানাগেছে, ২০১৭ সালে ধুনট উপজেলার গোপালনগর ইউনিয়নের কোনাগাঁতি গ্রামের দরিদ্র কৃষক জসীম উদ্দিনের ছেলে শামীম রেজাকে কোনাগাঁতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দপ্তরী পদে চাকরি দেওয়ার কথা বলে ৬ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন গোপালনগর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সেলিম রেজা। কিন্তু ওই প্রতিষ্ঠানে একই পদে নিয়োগ দিতে আরো ৪ জন প্রার্থীর কাছ থেকে আরো কয়েক লাখ টাকা হাতিয়ে নেয় সেলিম। কিন্তু এরপর ৫ জন প্রার্থীর মধ্য থেকে একজন প্রার্থীকে মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে নিয়োগ দেয়া হয়।

অনুসন্ধানে জানাগেছে, ধুনট উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ধুনট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল হাই খোকন ধুনট উপজেলার ১০টি ইউনিয়নের ২০২ টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নৈশ প্রহরী পদে নিয়োগ দিতে তার লোকদের মাধ্যমে কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। তারই সহযোগি গোপালনগর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি সেলিম রেজা। তিনি গত তিন বছর আগে গোপালনগর ইউনিয়নের কোনাগাঁতি গ্রামের দরিদ্র কৃষক জসীম উদ্দিনের ছেলে শামীম রেজাকে কোনাগাঁতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দপ্তরী পদে চাকরি দেওয়ার কথা বলে ৬ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন।

কিন্তু সেলিম দির্ঘদিনেও টাকা ফেরত না দেয়ায় এবং হুমকি দেয়ায় গত ৪ মাচ ভুক্তভোগি চাকরি প্রার্থী শামীম রেজার বড় ভাই আব্দুল হাই বাদী হয়ে ধুনট উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ধুনট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল হাই খোকন এবং গোপালনগর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি সেলিম রেজা কে আসামী করে ধুনট থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। কিন্তু থানায় অভিযোগ দায়েরের পর থেকেই ওই পরিবারকে হুমকি ও ভয়ভীতি দেখিয়ে আসছিল সেলিম রেজা।

একপর্যায়ে বুধবার (১০ মার্চ) সন্ধ্যার দিকে সেলিম রেজা ও তার লোকজন কোনাগাঁতি গ্রামে চাকরি প্রার্থীর ভাই আব্দুল হাইকে একা পেয়ে মারধর করতে থাকেন এবং তাকে সহ ধুনট উপজেলা চেয়ারম্যাননের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে নিতে বলেন। কিন্তু তারা রাজি না হওয়ায় স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা সেলিম ও তাদের লোকজন চাকরি প্রার্থী শামীম রেজা ও তার ভাই আব্দুল হাইকে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে।

এসময় স্থানীয় এলাকাবাসী ধাওয়া করে সেলিমকে গণধোলাই দিয়ে একটি বাড়িতে দড়ি দিয়ে বেধে রাখে। পরে ধুনট থানা পুলিশ সংবাদ পেয়ে বিক্ষুদ্ধ জনতার জিম্মিদশা থেকে প্রতারক স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা সেলিমকে উদ্ধার করে।

এবিষয়ে ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, জনতার হাত থেকে একজন উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। এবিষয়ে পরবর্তীতে পদক্ষেপ নেয়া বলে জানান তিনি।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %
error: Content is protected !!