• শনি. মার্চ ৬, ২০২১

অনুসন্ধানবার্তা

অজানাকে জানতে চোখ রাখুন

মাদক নিয়ে দীপিকা, শ্রদ্ধা কাপূর ও সারাকে এনসিবি’র জিজ্ঞাসাবাদ

Byঅনুসন্ধান বার্তা

সেপ্টে ২৭, ২০২০
0 0
Read Time:4 Minute, 53 Second

অনুসন্ধান বার্তা ডেস্ক নিউজ :
মাদক কেলেঙ্কারির তদন্তে বলিউডের সমকালীন শীর্ষ তারকা দীপিকা সহ শ্রদ্ধা কাপূর এবং সারা আলি খানকে হাজির হতে হলো মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ব্যুরোর (এনসিবি) দপ্তরে। শনিবারের (২৬ সেপ্টেম্বর) মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ব্যুরোর দপ্তরে দীপিকা, শ্রদ্ধা এবং সারার জিজ্ঞাসাবাদের প্রাথমিক পর্ব সম্পন্ন হয়। সূত্রের বরাত দিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, দিনভর জিজ্ঞাসাবাদের পর তিন অভিনেত্রীর প্রত্যেকেই দাবি করেছেন, তারা কোনওদিনই মাদক নেননি।

এদিকে, মাদক-কাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে এদিন এনসিবি গ্রেপ্তার করেছে পরিচালক এবং প্রযোজক করন জোহরের ‘ঘনিষ্ঠ বন্ধু’ বলে পরিচিত ক্ষিতিজ রবি প্রসাদকে। যদিও করণ আগেই বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছেন, ক্ষিতিজ আদৌ তার ‘ঘনিষ্ঠ’ নন। ক্ষিতিজের বিরুদ্ধে অভিযোগ, গাঁজা ছাড়াও এমডিএমএ (এক ধরণের মাদক) নিতেন তিনি। করতেন মাদক সরবরাহও। তবে ক্ষিতিজের দাবি, মারিজুয়ানা মাদক সেবন করলেও তিনি মাদক পাচার বা সরবরাহে যুক্ত নন।

এনসিবি সূত্র জানায়, দীপিকা এদিন জেরায় স্বীকার করে করে নেন, হোয়াটসঅ্যাপের সেই বিতর্কিত গ্রুপে ‘ডি’ এবং ‘কে’-র মাদক সংক্রান্ত যে চ্যাট হয়েছিল, তা তার এবং তার ম্যানেজার করিশমার প্রকাশেরই কথোপকথন। ‘ডি’ হলেন দীপিকা নিজে এবং ‘কে’ করিশমা। ওই চ্যাটে দীপিকা করিশমাকে লিখেছিলেন, ‘মাল হ্যায় ক্যায়া?’ দীপিকা জেরায় জানিয়েছেন, করিশমার কাছে তিনি যে ‘মাল’ চেয়েছিলেন, তা মাদক নয়। তিনি কোনওদিনই মাদক নেননি।

অন্যদিকে, সারা সদ্য প্রয়াত অভিনেতা সুশান্ত সিংহ রাজপুতের সঙ্গে তার একসময়ের ঘনিষ্ঠতার কথা স্বীকার করে নিয়েছেন। সারা জেরার মুখে জানিয়েছেন, ‘কেদারনাথ’ ছবির শ্যুটিংয়ের সময় কাছাকাছি এসেছিলেন তারা। একসঙ্গে পার্টি করেছেন। বিভিন্ন জায়গায় বেড়াতেও গিয়েছেন। যদিও পরে সেই সম্পর্ক ভেঙে যায়।

সারা আলি খানের বক্তব্য, তিনি এবং সুশান্ত একসঙ্গে প্রচুর পার্টি করেছেন ঠিকই। কিন্তু তিনি কোনও পার্টিতেই মাদক নেননি। সিগারেট খেয়েছেন অবশ্য। প্রসঙ্গত, দিন কয়েক আগে সারা এবং সুশান্তের একটি ভিডিও হঠাৎ ভাইরাল হয়। সেই ভিডিওতে সারা-সুশান্ত দু’জনের হাতেই সিগারেট ছিল। প্রশ্ন উঠেছিল সিগারেটের মধ্যে কি মাদক ছিল? এনসিবি সেই প্রসঙ্গে জানতে চাওয়ায় সারা দাবি করেন, তাদের হাতে বিশুদ্ধ সিগারেটই ছিল। তাতে কোনও মাদক ছিল না। তিনি ধূমপান করেন। কিন্তু মাদক নেন না।

জেরার মুখে শ্রদ্ধা শ্রদ্ধা কাপূর দাবি করেন, তিনিও কোনওদিন মাদক নেননি। জয়া সাহার সঙ্গে তার সিবিডি অয়েল সংক্রান্ত (গাঁজা থেকে তৈরি এক ধরণের তৈলজাতীয় পদার্থ) যে চ্যাট প্রকাশ্যে এসেছিল, সে বিষয়ে শ্রদ্ধাকে প্রশ্ন করা হলে তিনি তা এড়িয়ে যান। শ্রদ্ধার জবাব খুব ‘সন্তোষজনক’ বলে মনে হয়নি এনসিবি কর্তাদের।

তিন নায়িকার জিজ্ঞাসাবাদ পর্ব শেষ হওয়ার পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন এনসিবি-র ডেপুটি ডিরেক্টর জেনারেল মুথা অশোক জৈন। এনসিবি-র তরফে একটি বিবৃতিও জারি করা হয়। তাতে বলা হয়, রবিবার দীপিকা, সারা, শ্রদ্ধা এবং দীপিকার ম্যানেজার করিশমা প্রকাশকে আর ডাকা হচ্ছে না।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %
error: Content is protected !!